দেওয়ানগঞ্জের কাঠারবিলে ইউএনও’র নদীভাঙ্গনের শিকার সড়ক পরিদর্শন

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ সানন্দবাড়ী সড়কের কাঠারবিল অংশের জিঞ্জিরাম নদী ভাঙ্গন কবলিত কয়েকটি এলাকা পরিদর্শন করেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার একেএম আব্দুল্লাহ বিন রশিদ। গতকাল বেলা ১২টার দিকে তিনি উপজেলা প্রকৌশল দপ্তরের লোক সাথে নিয়ে এই পরিদর্শন করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, গত কয়েক দিনের টানা বর্ষন ও পাহাড় থেকে নেমে আসা উজান ঢলে জিঞ্জিরাম নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়ে দেওয়ানগঞ্জ থেকে সানন্দবাড়ী সড়কের হাতীভাঙ্গা ইউনিয়নের মজিরুর মাষ্টারের বাড়ী সংলগ্ন জবেদ মোড় এলাকার সড়কে ভাঙ্গন শুরু হয়। এতে যানবাহন যাতায়াতে ও জনসাধারন চলাচলে দুর্ভোগ বাড়তে থাকে।

জবেদ মোড়, সবুজপুর, সাপমারী এলাকায় পৃথক স্থানে নদী ভাঙ্গন অব্যাহত থাকার সংবাদ পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নদী ভাঙ্গনের শিকার এলাকা ও ক্ষতিগ্রস্হ তারাটিয়া জল ব্রীজ সড়ক পরিদর্শন করেন।
পরিদর্শন কালে গনমাধ্যম কর্মীদের জানান দেওয়ানগঞ্জ – সানন্দবাড়ী সড়কের যেসব স্থানে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে দ্রুত ভাবে সংস্কার না হলে যানবাহন চলাচল ও উত্তর অঞ্চলের চারটি ইউনিয়নের সাথে দেওয়ানগঞ্জ যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যাবে। তিনি আরো বলেন, আমি এই বিষয়ে ডিসি মহোদয় সহ যথাযথ কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলেছি। ভাঙ্গন কবলিত এলাকায় উপজেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের পক্ষ থেকে সংস্কারের উদ্যোগ গ্রহণ করা হবে। এবং অতিদ্রুত উক্তস্থানে সংস্কারের কাজ শুরু হবে।

পরিদর্শন শেষে ইউএনও তারাটিয়া, পাথরের চর, ডাংধরা, কাউনিয়ারচর বাজার, বাঘারচর বাজার, সানন্দবাড়ী বাজার, ঝালরচর বাজার, ডিগ্রীরচর বাজাররে লক ডাউন কার্যকর করার জন্য অভিযান পরিচালনা করেন এবং সবাইকে ঘরে থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহবান জানান এবং মাক্স বিতরণ করেন। বেলা ৩ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত চলে লকডাউন অভিযান। বিজিবি ও পুলিশ এই অভিযানে অংশ নেয় । সাথে ছিলেন সাংবাদিকবৃন্দ।


এসময় তার সাথে ছিলেন, উপজেলা প্রকৌশলী দপ্তরের এস ও খোরশেদ আলম, পাররামরামপুর ইউপি চেয়ারম্যান সোহেল রানা, হাতিভাংগা ইউপি চেয়ারম্যান নুর ছালাম, ডাংধরা ইউপি চেয়ারম্যান শাহ মুহাম্মদ মাসুদ, কালের কন্ঠের দেওয়ানগঞ্জ প্রতিনিধি সাংবাদিক তারেক মাহামুদ, সাংবাদিক বিল্লাল হোসেন মন্ডল, ফারুক হোসেন রিয়াদ হাসান, সহ অর্ধশত বিভিন্ন প্রিন্ট এবং ইলেকট্রিক মিডিয়ার সাংবাদিক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *