সাংবাদিক মোস্তফা মনজুর উপর হামলার ঘটনায় জেলা জুড়ে নিন্দা

মঙ্গলবার জামালপুর সদর সাব-রেজিস্ট্রার কার্যালয়ে জাল দলিলের তথ্য নিতে গিয়ে প্রবীণ সাংবাদিক কালের কণ্ঠের জামালপুর জেলা প্রতিনিধি মোস্তফা মনজু শারীরীকভাবে লাঞ্চিত হয়েছেন। এ ঘটনায় জেলা জুড়ে নিন্দা, প্রতিবাদ ও জড়িতদের দ্রুত শাস্তি দাবী করেছেন সাংবাদিকসহ সচেতন নাগরিকগণ। দোষীদের বিচারে জেলা প্রশাসক ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের কাছে পেশ করা হয়েছে স্মারকলিপি।

জানা গেছে, গত সোমবার জামালপুর সদর সাব রেজিস্ট্রার মো. সাখাওয়াত হোসেন দলিল লেখক মো. হাবিবুর রহমানের একটি দলিল নিবন্ধনের কাগজপত্র যাচাই-বাছাইকালে দলিলের সাথে দাখিলকৃত জমির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ভুয়া বলে চিহ্নিত করেন। এ সময় সদর সাব রেজিস্ট্রার ৭৭ হাজার টাকার পে-অর্ডার, ভুয়া নামজারি, ভুয়া ডিসিআর কপি ও ভুয়া খাজনা রশিদসহ দলিলটি জব্দ করেন।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে জাল কাগজপত্রের মাধ্যমে জমির দলিল নিবন্ধনের ওই বিষয়টির তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে সদর সাব রেজিস্ট্রারের কার্যালয় প্রাঙ্গণে দলিল লেখক মো. হাবিবুর রহমানের সাথে কথা বলছিলেন সাংবাদিক মোস্তফা মনজু। তার সাথে কথা বলে চলে আসার সময় একদল দুর্বৃত্তের হামলায় তিনি গুরুতর আহত হন। জামালপুর সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়ে তিনি বর্তমানে তার বাসায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

ওই হামলার ঘটনায় সাংবাদিক মোস্তফা মনজু নিজে বাদী হয়ে গতকাল মঙ্গলবার রাতে জামালপুর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন। ওই মামলায় স্ট্যাম্প ভেন্ডার ও জামালপুর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাসানুজ্জামান খান রুনুসহ নয়জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলার অন্যান্য আসামিরা হলেন জামালপুর শহরের পাথালিয়া এলাকার মো. উকিল মিয়া এবং দেওয়ানপাড়া এলাকার তুহিন খান, স্বজন খান, রাকিব খান, সিদ্দিক মন্ডল, আলমগীর বাচ্চু, দলিল লেখক হাবিবুর রহমান, তুষার খান ও অজ্ঞাত পরিচয়ের একজন দলিল লেখক।

এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে প্রতিবাদ সভা করেছে জামালপুর প্রেসক্লাব। এতে বক্তব্য রাখেন, জামালপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি হাফিজ রায়হান সাদা, সাধারণ সম্পাদক মো. লুৎফর রহমান, সহ-সভাপতি দুলাল হোসাইন,জামালপুর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আজিজুর রহমান ডল, সাংবাদিক নুরুল হক জঙ্গী, মোস্তফা বাবুল, জাহাঙ্গীর সেলিম, মোঃ শহিদুল ইসলাম তুফান সহ প্রেসক্লাবের অন্যান্য সাংবাদিকবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

জেলা প্রশাসক ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দোষীদের গ্রেফতার ও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের বিষয়ে আশস্ত করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

12 − 8 =