ইসলামপুর পৌরসভাসহ ১২ টি ইউনিয়নে ধানের ব্লাষ্ট রোগের প্রাদুর্ভাব

শফিকুর রহমান ইসলামপুর থেকে : জামালপুরের ইসলামপুরে ধানের ব্লাষ্ট রোগের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে । গত বুধবার ও বৃহ:বার ইসলামপুর উপজেলার পৌরসভার নটারকান্দা,বেপারীপাড়া,পলবান্ধা,মোশারফগঞ্জ,বোয়ালমারী,টংগেরআলগা এবং পাথর্শী ইউনিয়নের হাড়িয়াবাড়ী,মোজাআটা,ঢেংগাড়গড় এবং ইসলামপুর সদর ইউনিয়নের পচাবহলা,পাচবাড়িয়া গ্রামে ঘুরে দেখা যায় কৃষকরা ধান চিটা হওয়ায় ধানক্ষেত কর্তন করে খড় হিসাবে বিক্রি করছে।
পৌরসভার নটারকান্দা গ্রামের কৃষক রহমত আলী জানান তার ৫০ শতাংশ জমিতে ব্লাষ্ট রোগের আক্রমণে ধান ক্ষেত ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। তিনি ফসলে উৎপাদন খরচ না উঠার আশঙ্কা করছেন।পাথর্শী ইউনিয়নের হাড়িয়াবাড়ী গ্রামের কৃষক ওমর আলী হাজী বপনকৃত ৩০ শতাংশ জমির ধান ক্ষেতে গিয়ে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় চিটা হওয়ায় ধান ক্ষেত কর্তন করে তিনি খড় হিসাবে বিক্রি করছেন। ইসলামপুর সদর ইউনিয়নের পাচবাড়িয়ার কৃষক কুদ্দুস,শরী ও জলীল জানান তাদের ক্ষেতেও ব্লাষ্ট রোগের আক্রমণ দেখা দেওয়ায় তারা দিশেহারা এবং ঋনের টাকা শোধ করতে না পারায় হতাশ হয়ে পড়েছেন।
ইসলামপুরে কৃষি কর্মকর্তা মো: মতিয়ার রহমান জানান আবহাওয়াগত কারনে মৌসুমের অগ্রিম বৃষ্টি হওয়ায় ধানের ব্লাষ্ট রোগ দেখা দিয়েছে । এ রোগের লক্ষণ হলো পাতা,কান্ড ও শীষ আক্রান্ত হয়।প্রথমে পাতায় ডিম্বাকৃতি দাগ পড়ে যার দুপ্রান্তে লম্বা হয়ে চোখাকৃতি ধারণ করে। দাগের মধ্যভাগে ছাই রংয়ের ও বাইরের দিকের প্রান্ত গাড় বাদামী রংয়ের হয় ।অনেকগুলি দাগ একত্রিত হলে পাতা মরে যায়। রাতে ঠান্ডা,দিনে গরম এবং শিশির থাকলে এ রোগের প্রকোপ বেড়ে যায় ।কৃষি কর্মকর্তা মো: মতিয়ার রহমান আরো জানান রোগ প্রতিরোধে শীষ আসা শুরু হলে ট্রাইসাইক্লোজল গ্রুপের ছত্রাকনাশক যেমন ট্রপার ৭৫ ডব্লিউপি বা জিল ৭৫ অনুমোদিত মাত্রায় মিশিয়ে বিকালে স্প্রে করতে হবে।

কৃষি কর্মকর্তা মো: মতিয়ার রহমান জানান, মৌসুমের শুরু থেকে কৃষি দপ্তরের লিফলেট বিতরন ও সচেতনতামূলক সভা করায় দেশের অন্যান্য এলাকার থেকে ইসলামপুরে এ রোগ তুলনামূলক কম দেখা দিয়েছে ।

 

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

ten − 8 =