আ’লীগ ছাড়া অন্য রাজনৈতিক দলের কেউ জনগণের পাশে নেই- মির্জা আজম এম.পি

এম.ইউ শাকিল ॥
বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আলহাজ¦ মির্জা আজম এম.পি বলেছেন, বাংলাদেশে অনেকগুলো রাজনৈতিক দল থাকলেও বর্তমান এই পরিস্থিতিতে কেউ কিন্তু জনগণের পাশে নেই। মাঠ পর্যায়ে অন্যান্য রাজনৈতিক দলের কাউকে এখন খুজে পাওয়া যাচ্ছে না। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে জনগণের পাশে থেকে সার্বিক সহযোগিতা প্রদান করছেন একমাত্র আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাই। আজকে বাংলাদেশে প্রমাণিত একমাত্র আওয়ামী লীগ ছাড়া অন্য কোন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা জনগণের পাশে নাই এবং এটাই হলো বাস্তবতা। তারা কেউ নাই দেখে আমরা পিছিয়ে থাকবো তা কিন্তু নয়। বঙ্গবন্ধুকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা’র নির্দেশে সামর্থের সর্বোচ্চ শক্তি দিয়ে জনগণের পাশে দাঁড়িয়ে সহযোগিতা করছেন বিভিন্ন স্তরের আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

শনিবার (৯ মে) দুপুর ১টার দিকে জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে দলীয় কার্যালয়ে করোনার প্রভাবে কর্মহীন অসহায় ও দুস্থ মানুষের জন্য ত্রাণ সহায়তা বিতরণ কার্যক্রম সম্পর্কে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন ।

তিনি আরো বলেন, দলীয় বিবেচনা পরিহার করে সুষ্ঠভাবে ওইসব ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। দেশের সংকটময় মুহূর্তে বসে নেই আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীরা। যতদিন এই দুর্যোগ থাকবে ততদিনই মানুষের পাশে থাকবে তারা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহাম্মেদ চৌধুরী। এছাড়াও বক্তব্য রাখেন ও সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট মুহাম্মদ বাকী বিল্লাহ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি মির্জা সাখাওয়াতুল আলম মনি, অ্যাডভোকেট আমান উল্লাহ আকাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক ছানোয়ার হোসেন ছানু, দপ্তর সম্পাদক আছাদুজ্জামান আকন্দ বাবু, সদস্য শাহরিয়ার উজ্জল, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফারহান আহাম্মেদ, জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নিহাদুল আলম নিহাদ প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়েছে, ‘যতদিন শেখ হাসিনার হাতে দেশ, ততদিন পথ হারাবেনা বাংলাদেশ’। জামালপুর জেলায় এ পর্যন্ত নগদ অর্থ সহায়তা প্রদান করা হয়েছে ৬৮ লাখ ২৭ হাজার ৩০০ টাকা। মোট সুবিধাভোগীর সংখ্যা এক লাখ। জেলা সদরসহ সাতটি উপজেলায় নগদ অর্থ ও খাদ্য সহায়তা প্রদান কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছেন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *