মাদারগঞ্জে বৃদ্ধাকে গলা কেটে হত্যা: অভিযুক্ত জামাই গ্রেফতার

মাদারগঞ্জের মির্জাপুরে সত্তর বছরের বৃদ্ধাকে হত্যা করা হয়েছে গলা কেটে। নৃশংসতার শিকার বৃদ্ধার নাম ভানু বেওয়া। তিনি জামালপুর সদরে অবস্থিত ইটাইল গ্রামের মরহুম আব্দুর রাজ্জাকের স্ত্রী। এ ঘটনায় অভিযুক্ত নিহত ভানু বেওয়ার ছোট মেয়ের জামাই রফিকুল ইসলাম ভান্ডারিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

অভিযুক্ত রফিকুল ইসলাম ভান্ডারি মেলান্দহের দিলালেরপাড়া গ্রামের মরহুম মোজাফ্ফর মন্ডলের ছেলে। জানা যায়, অভিযুক্ত ঘাতক তার শ্বাশুড়িকে গত দুইদিন আগে ২৬শে আগস্ট তার বাড়িতে নিয়ে আসে। তার পর থেকেই তার আর খোঁজ পাওয়া যাচ্ছিল না। গতকাল ২৭শে আগস্ট মাদারগঞ্জের মির্জাপুরে নিহত ভানু বেওয়ার লাশ পাওয়া গেলে তাকে হত্যার বিষয় জানাজানি হয় তবে সে লাশের মস্তক ছিল না। পরে গতকাল ২৮শে আগস্ট পুলিশ পাশের ডোবা থেকে বৃদ্ধার খন্ডিত মস্তক উদ্ধার করে এবং ময়নাতদন্ত শেষে লাশ তার স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

আজ ২৮শে আগস্ট বিকালে ফোনকলের সূত্র ধরে মাদারগঞ্জ থানা পুলিশের এসএসপি সামিউল হকের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল মাদারগঞ্জের কড়ইচূড়া ইউনিয়নের একটি বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করেন। এর আগে অভিযুক্ত ভান্ডারি ফোনে পুলিশের কাছে হত্যার দায় স্বীকার করে বলে জানা যায়। এ ঘটনায় নিহত বৃদ্ধার আরেক মেয়ে কমলা বেগম বাদী হয়ে ভাণ্ডারীর বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন। আগামীকাল ২৯শে আগস্ট তাকে আদালতে নেওয়া হবে বলে মাদারগঞ্জ থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

three × 1 =