কবিতা কি এবাই আহে? ড. মুজাহিদ বিল্লাহ ফারুকী

কবিতা কি এবাই আহে? সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজের অধ্যক্ষ ডক্টর মুজাহিদ বিল্লাহ ফারুকীর অসাধারণ আবৃত্তি। (দেখুন নিচে সংযুক্ত
ভিডিও )

কবিতা কি এবাই আহে ?

আত্মীয় ছারছি ত ম্যালাদিন
হ্যাষে তুমারেও ছাইর‍্যা আইলাম এইহানে ।
এইডা বৈদ্যাশ- চিনপরিচয় নাই কারো সাতে,
আসমানের চান-সূর্য, বিরিক্ষের লতাপাতা, বনের পশুপাখি,
বেবাকই মনে অয় অচিনা । মানুষ ত ম্যালাই
চাইরপাশে গুর গুর করে 
যেই মানুষের কতা চিনির শরবতের চাইতে মিঠ্যা 
হেই মানুষ কই?
যেই মানুশেরে দেখলে পরাণ জুরাইয়া যায়,
গাঁও-গেরামে স্বর্গ নামে- হেই মানুষ কই? দিলের মইদ্যা
যেই কতা উতাল-পাতাল করে
হেই কতা কওনের মানুষ নাই-
এইডাই বড় যন্ত্রণা করে দিলের মইদ্যা
বুকের মইদ্যা কেমুন আনচান করে মাইজ রাইতে ।
চিক্কুর দিয়া ঘুম ভাঙ্গে ।
বিছনা আঁতরাইয়া দেহি তুমি নাই…

কত কতা যে মুনে অয় একলা আন্ধাইর ঘরে-
…হেই যে কুন দিন বুটকালাই খাইতে গেছিলাম বন্দে ।
কালাই ভাইব্যা খাইয়া দেহি,
মাটির দলা মুখের মইদ্যা কির কির করে ।
মাটির দলা না কি জানি…
ওয়াক থু কইরা যহন মুখ ঝারি,
তুমি মুচকি হাসি দিয়া কইছিলা,
হাবাইত্যা কুনহানকার, দেইখ্যা খাবার পাও না?…

আমাগো গেরামে বৈশাখের মেলা অইত পত্যেক বচ্ছর ।
একদিন সইন্ধের পরে আমার বাড়ির সামনে
বাতরে তুমি খাড়াইয়া আছিলা ।
আমি কাছে আইতেই আমাবশ্যার আন্ধারের মত
গভীর কইরা কইলা, কী আনছ আমার জন্য,
চুড়ি, না ঝুরি ? আমি ঝুরিগুলা তুমার আতে দিয়া কইলাম,
এট্টু খাড়াও, আমি আইতাছি ।
পঙ্খির নাহাল উইর‍্যা গেলাম মেলায় । ঝুরি নিয়া
ফির‍্যা আইলাম রেসের ঘোড়ার মতন ।
আন্ধাইরে চোখ বিন্ধাইয়া দেহি, তুমি নাই…
তুমার ভাই আন্ধাইরে খাড়াইয়া খাড়াইয়া সব দেখছিল…
আমারে জন্নমের মত আন্ধাইর দিয়া
তুমার ভাই তুমারে নিয়া কই যে গেল…!

হেইদিন থাইক্যা আমার মুহে গান
আর কতায় কতায় কবিতা ।
চিনা জায়গা থুইয়া আইলাম অচিন-বৈদ্যাশে

তুমরাই কও ব্যামাহে,
কবিতা কি এবাই আহে ?
ঠ্যালায় আহে…

[দেখুনঃ এট্টূ- একটু, থাইক্যা- থেকে, মুহে-মুখে, ব্যামাহে-সবাই, এবাই-এমনি, ঠ্যালায়-চাপে, আহে-আসে]

সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজের অধ্যক্ষ ডক্টর মুজাহিদ বিল্লাহ ফারুকীর অসাধারণ আবৃত্তি। কবিতা কি এবাই আহে?

Gepostet von jamalpurbarta.com am Dienstag, 26. Februar 2019

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *