সাবেক বিএনপি মহাসচিব আব্দুস সালাম তালুকদারের ২০তম মৃত্যুবার্ষিকী

আব্দুস সালাম তালুকদার (জন্ম: ৪ নভেম্বর, ১৯৩৬ – মৃত্যু: ২০ আগস্ট, ১৯৯৯)

নিজস্ব প্রতিবেদক: জামালপুরের সরিষাবাড়ির কৃতি সন্তান, ব্যারিষ্টার আব্দুস সালাম তালুকদার ছিলেন বাংলাদেশের একজন প্রথিতযশা আইনজীবী ও রাজনীতিবিদ। তিনি বিএনপির মহাসচীব ও সরকারের এলজিআরডি মন্ত্রী ছাড়াও রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রীসহ সরকারের গুরুত্বপূর্ণ অনেক দায়িত্ব পালন করেন। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের প্রতিষ্ঠাতাদের মধ্যে তিনি ছিলেন অন্যতম। তিনি ছিলেন চারদলীয় ঐক্যজোটের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা এবং সফলতার সাথে চারদলীয় লিঁয়াজো কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৯০-এর স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে রাজপথে ব্যারিষ্টার আব্দুস সালাম তালুকদার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন।

১৯৭৬ সালে ডেমোক্রেটিক লীগে যোগদানের মাধ্যমে আবদুস সালাম তালুকদারের রাজনৈতিক জীবনের শুরু। পরে তিনি বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলে যোগ দেন। তিনি ১৯৭৯, ১৯৯১ ও ১৯৯৬ সালে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সংসদ-সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৭৯ সালে তিনি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৩৪তম অধিবেশনে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেন। ১৯৮১ সালে তিনি জিয়াউর রহমানের ক্যাবিনেটে আইন ও সংসদ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব লাভ করেন। ঐ বছর কলমেতাতে অনুষ্ঠিত আফ্রো-এশিয়ান লিগাল কনসালটেটিভ কমিটির সম্মেলনে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দেন। ১৯৯১-১৯৯৬ সালে তিনি স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ছিলেন। তিনি জাতীয় সংসদের স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় এবং পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি ছিলেন।

আব্দুস সালাম তালুকদার ১৯৩৬ সালের ৪ নভেম্বর জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ী উপজেলার মুলবাড়ী গ্রামের সম্ভ্রান্ত তালুকদার পরিবারে জন্মগ্রহন করেন। তাঁর পিতা রিয়াজ উদ্দিন তালুকদার জামালপুর জেলার মধ্যে একজন দানশীল ও ধার্মিক ব্যক্তি ছিলেন।

১৯৯৯ সালের ২০ আগস্ট হার্টের বাইপাস সার্জারি করানোর জন্য সিঙ্গাপুরের উদ্দেশে রওনা হওয়ার পথে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যুবরণ করেন ।

তথ্যসূত্র: বাংলাপিডিয়া ও উইকিপিডিয়া

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *