দেওয়ানগঞ্জে হত্যাকান্ড: ৩২ জনের বিরুদ্ধে স্ত্রী’র মামলা

দেওয়ানগঞ্জে একেএম কলেজের সাবেক জিএস আব্দুল খালেক হত্যার ঘটনায় বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও নৌকা মনোনীত প্রার্থী আবুল কালাম আজাদের ভাই হারুনুর রশিদকে প্রধান ও তার ভাতিজা সেলিম খান সহ ৩২ জনকে আসামী করে মামলা করেছেন নিহতের স্ত্রী তারজিনা আক্তার লাকি।

জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফারিয়া আরজু দেওয়ানগঞ্জ থানার ওসিকে তদন্ত করে থানায় মামলা রুজু করার নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

মামলার বিবরনে বলা হয়েছে, নিহত আব্দুল খালেক স্বতন্ত্র প্রার্থী সোলায়মান হোসেনের আপন ভায়রা ভাই। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যার দিকে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আবুল কালাম আজাদের ভাই হারুনুর রশিদ ও তার লোকজন আব্দুল খালেককে বাড়ি ডেকে জোর করে ডেকে নিয়ে যায়।

তারপর চুকাইবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদে উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদের ভাই হারুনুর রশিদ ও ভাতিজা ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম খান, আব্দুল খালেককে স্বতন্ত্র প্রার্থী ভায়রা ভাইয়ের মোটরসাইকেল প্রতীকের বিপক্ষে নৌকা প্রতীকের পক্ষে নির্বাচনী কাজ করার জন্য চাপ সৃষ্টি করে। এতে খালেক রাজি না হওয়ায় হারুন অন্য আসামীদের হুকুম দেয় মোটরসাইকেলের পক্ষে নির্বাচন করার সাধ মিটিয়ে দিতে। ওই সময় অন্য আসামীরা খালেকের পেটের বাম পশি ও বুকে শর্টগান দিয়ে গুলি করে। গুরুতর আহতাবস্থায় তাকে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পথে তিনি মারা যান।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য যে, গত বুধবার নির্বাচনী সহিংসতায় মারা যান আব্দুল খালেক। এ ঘটনায় নিজেদের সংশ্লিষ্টতা অস্বীকার করে বিদ্রোহী প্রার্থীকে অভিযুক্ত করেছেন, নৌকার প্রার্থী আবুল কালাম আজাদ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

two × 2 =