ইউ এন ও’র বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের অভিযোগ: একদিন পর প্রত্যাহার

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জে অস্বচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সরকারি বরাদ্দকৃত ঘর নির্মাণ এবং ঘর বরাদ্দ দেওয়া নিয়ে এক মুক্তিযোদ্ধা পরিবার এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মধ্যকার তিক্ততা নিরসন হয়েছে।

এ নিয়ে আজ সোমবার ৩০ শে আগস্ট উপজেলা কনফারেন্স রুমে এক প্রেস ব্রিফিং আয়োজন করে উপজেলা প্রশাসন। উক্ত প্রেস ব্রিফিং এ উপজেলা নির্বাহী অফিসার এ কে এম আব্দুল্লাহ বিন রশিদ জানান, আমি একজন সরকারি কর্মকর্তা এবং আমি সরকারের এজেন্ডা বাস্তবায়নে বদ্ধপরিকর সরকারের নীতি এবং নিয়মের বাইরে গিয়ে কোনো কিছু করার এখতিয়ার আমার নেই। দেওয়ানগঞ্জে অসচ্ছল এবং বীর মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য বীরনিবাস নামে ১২ টি পাকা ঘর নির্মাণে বরাদ্দ এসেছে। বারোটি ঘরের মধ্যে নয়টি ঘর আমরা চূড়ান্ত নির্বাচন করেছি তিনটি ঘর নির্মাণ তদন্তাধীন রয়েছে। আর সেই ৩ টি ঘর যাদের নামে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে তাদের পাকা ঘর রয়েছে এবং তারা সচ্ছল। তিনটি ঘরের জায়গা নিচু এবং মাটি মজবুত না হওয়ায় কিছুদিন পর যদি এসব ঘর ধসে যায় তখন কাজের মান নিয়ে প্রশ্ন উঠবে এবং সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন হবে বিধায় এই প্রকল্পের পরিচালক স্যার আমাকে ঝুঁকিপূর্ণ স্থানে ঘর নির্মাণ করতে নিষেধ করে দিয়েছেন। কিন্ত এই তিনটি পরিবারের একটি পরিবার গতকাল যেসব অভিযোগ করেছিল, আজ প্রেস ব্রিফিং এর মাধ্যমে তারা তাদের ভুল স্বীকার করেছেন।

আজকের প্রেসব্রিফিংয়ে অভিযোগ কারি বীর মুক্তিযোদ্ধা সাজু শেখের কন্যা মোসাম্মৎ সাথী আক্তার বলেন, তারা বুঝতে না পেরে ইউএনওর বিরুদ্ধে অভিযোগ এবং বিক্ষোভ-মিছিল করেছিল আজ তারা তাদের ভুল বুঝতে পেরেছেন। প্রেস ব্রিফিং এ উপস্থিত ছিলেন, সাবেক জেলা মুক্তিযোদ্ধা ডেপুটি কমান্ডার সুজাত আলী, দেওয়ানগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মুহব্বত কবীর, ভাইস চেয়ারম্যান দেওয়ান ইমরান , এমপির পিএ মুক্তাদির বিল্লাহ শিপন, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার খুররম , বীর-মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল কাদের , বীর মুক্তিযোদ্ধা তারিকুজ্জামান সহ বীর মুক্তিযোদ্ধা সাজু শেখের মেয়ে মোসাম্মৎ সাথী আক্তার এবং বীর মুক্তিযোদ্ধা সাজু শেখের ছেলে মোহাম্মদ মোস্তফা সহ অন্যরা।

উল্লেখ্য গত কাল অসচ্ছল বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের গৃহ নির্মাণ নিয়ে এক মুক্তিযোদ্ধা পরিবার উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বিরুদ্ধে ঘর নিয়ে বিভিন্ন অভিযোগ নিয়ে আসে তারা দাবী করে ইচ্ছে করে ইউ এন ও তাদের ঘর দিচ্ছেনা। এই জন্য তারা উপজেলার সামনে মিছিল করে প্রতিবাদ জানান। তার একদিন পর আজ তারা প্রেস ব্রিফিং করে নিজেদের ভুল স্বীকার করে অভিযোগ প্রত্যাহার করে নেন তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.