সাংবাদিক মোস্তফা মনজুর ওপর হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে মানববন্ধন

কালের কন্ঠের জামালপুর প্রতিনিধি ও বাংলারচিঠিডটকমের নির্বাহী সম্পাদক মোস্তফা মনজুর ওপর হামলাকারীদের অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে জামালপুর প্রেসক্লাবের উদ্যোগে মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়েছে। ৩০ মে বেলা ১১টার দিকে শহরের দয়াময়ী মোড়ে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

জামালপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি হাফিজ রায়হান সাদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি দুলাল হোসাইন ও সাধারণ সম্পাদক লুৎফর রহমান, সাবেক সভাপতি আজিজুর রহমান ডল, সাংবাদিক সাযযাদ আনসারী, নূরুল আলম সিদ্দিকী, জাহাঙ্গীর সেলিম, মো. জাহাঙ্গীর আলম, মো. বজলুর রহমান, আনোয়ার হোসেন মিন্টু, সৈয়দ শওকত জামান, জামালপুর পৌরসভার কাউন্সিলর রাজিব সিংহ সাহা, নাট্যকার আলী আককাছ, কালের কণ্ঠ-শুভসংঘের সভাপতি বিল্লাল হোসাইন সরকার প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, পুলিশ রহস্যজনক কারণে সাংবাদিক মোস্তফা মনজুর ওপর হামলার ঘটনায় দায়ের করা মামলার একজন আসামিকেও গ্রেপ্তার করতে পারেনি। ২৯ মে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের কাছে স্মারকলিপিও দেওয়া হয়েছে। সারা জেলায় বিক্ষুব্ধ সাংবাদিকরা এ ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করতে জেলা পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান। অন্যথায় বৃহত্তর আন্দোলন গড়ে তোলা হবে বলে ঘোষণা দেন সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ।

জামালপুর প্রেসক্লাবের কর্মকর্তা ও সদস্য, বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিক, জেলা ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশনের কর্মকর্তা ও সদস্য ছাড়াও শহরের বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, সুধী ও সাধারণ লোকজন এ মানববন্ধনে অংশ নিয়ে সাংবাদিক নির্যাতনের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

জাল কাগজপত্রের মাধ্যমে জমির দলিল নিবন্ধনের তথ্য সংগ্রহ করতে গিয়ে ২৮ মে দুপুরে জামালপুর সদর সাব রেজিস্ট্রার কার্যালয় প্রাঙ্গণে দলিল লেখক মো. হাবিবুর রহমানের চেম্বারে তার সাথে কথা বলার সময় সাংবাদিক মোস্তফা মনজুর ওপর সন্ত্রাসী হামলা হয়। এতে তিনি গুরুতর আহত হন। এ ঘটনায় স্ট্যাম্প ভেণ্ডার ও জামালপুর পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর হাসানুজ্জামান খান রুনু, তার ছেলে রাকিব খান, শহরের পাথালিয়া এলাকার মো. উকিল মিয়া, দেওয়ানপাড়া এলাকার তুহিন খান, স্বজন খান, সিদ্দিক মন্ডল, আলমগীর বাচ্চু, দলিল লেখক হাবিবুর রহমান, তুষার খান ও অজ্ঞাত পরিচয়ের একজন দলিল লেখককে আসামি করে ২৮ মে রাতেই জামালপুর সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন মোস্তফা মনজু।

সূত্র: বাংলার চিঠি ডট কম

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

four × one =