সরিষাবাড়ীতে সড়ক সংস্কারে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার

প্রথম আলো: মুল লেখার লিংক : জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে যমুনা সার কারখানা কোম্পানি লিমিটেডের সড়ক সংস্কারকাজে ঠিকাদার নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এলাকাবাসী ও যমুনা সার কারখানা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার তারাকান্দিতে অবস্থিত সার কারখানার আওনা ইউনিয়নের জগন্নাথগঞ্জ আপার ঘাট থেকে কারখানার জেটি পর্যন্ত ১ হাজার ১০০ মিটার সড়ক আছে। এর প্রস্থ ৭ মিটার। এটি সংস্কারের জন্য বাংলাদেশ রসায়ন শিল্প সংস্থা (বিসিআইসি) নির্দেশে গত ১ মার্চ দরপত্র আহ্বান করা হয়। দরপত্রের শর্তানুযায়ী সড়কের দুই পাশ পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে মাটি ভরাট, গর্ত ভরাট, কার্পেটিং, সিলকোট করাসহ কয়েক ধরনের কাজ করার কথা। এ কাজের জন্য প্রায় ২৮ লাখ টাকা বরাদ্দ করা হয়। ১২ জুন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স লিমন এন্টারপ্রাইজকে সংস্কারকাজ শুরু করার অনুমতি দেওয়া হয়।

স্থানীয় লোকজনের অভিযোগ, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান কারখানার বিভাগীয় প্রধান (নির্মাণ) প্রকৌশলী ছায়ফুল ইসলামের যোগসাজশে সড়কে নিম্নমানের কাজ করেছে। সড়কের দুপাশে এক-দেড় ফুট বাদ দিয়ে কাজ করা হয়। নিম্নমানের কার্পেটিং করে মাটি ও বালু দিয়ে সড়ক ঢেকে দেওয়া হয়। এ ছাড়া সড়কের দুপাশে মাটি কাটার কথা থাকলেও তা কাটা হয়নি। সড়কে গর্ত ভরাটে নিম্নমানের খোয়া ব্যবহার করা হয়েছে। কার্পেটিংয়ে নিম্নমানের বিটুমিন ব্যবহার করা হয়েছে। ঠিকাদার গত বৃহস্পতিবার কাজ শেষ হয়েছে বলে কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালকের কাছে কাজ শেষে চূড়ান্ত বিলের জন্য আবেদন করেন। কিন্তু সংস্কারকাজ নিম্নমানের হওয়ায় বিল আটকে দেওয়া হয়েছে।

জগন্নাথগঞ্জ আপার ঘাট এলাকার লেবু মিয়া অভিযোগ করেন, সড়কটিতে নিম্নমানের কাজ হয়েছ।

মেসার্স লিমন এন্টারপ্রাইজের ঠিকাদার ইমান আলী বলেন, বরাদ্দ কম থাকায় মাটি কাটাসহ সড়কের কাজ ভালোভাবে করা সম্ভব হয়নি। এ কারণে কাজ কোথাও কোথাও নিম্নমানের হয়েছে।

নিম্নমানের কাজে ঠিকাদারকে সহায়তা করার অভিযোগ অস্বীকার করে ছায়ফুল ইসলাম বলেন, ‘কোনো ঠিকাদারই শতভাগ কাজ করেন না। সড়কের সংস্কার ও মেরামতকাজ বুঝিয়ে নেওয়া হয়েছে। আপনারা ঠিকাদারের সঙ্গে যোগাযোগ করুন।’

কারখানার ব্যবস্থাপনা পরিচালক খান জাবেদ আনোয়ার বলেন, সড়কের প্রাক্কলন অনুযায়ী কাজ করা না হলে বিল পরিশোধ করা হবে না।

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

15 − 4 =