মেষ্টায় দুই বোন হত্যা, হত্যাকারী দুই দাদা: পুলিশ

জামালপুরের পুলিশ সুপার দেলোয়ার হোসেন বৃহস্পতিবার দুপুরে তার কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছেন জমি সংক্রান্ত বিরোধে জেরে জামালপুর সদর উপজেলার মালয়েশিয়া প্রবাসী শামীম হোসেনের দুই মেয়েকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে ।

গত ২ অগাস্ট উপজেলার দেউলিয়াবাড়ি গ্রামের মালয়েশিয়া প্রবাসী শামীম হোসেনের মেয়ে নবম শ্রেণির ছাত্রী ভাবনা (১৫) ও চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী লুবনার (৯) গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

পুলিশ সুপার বলেন, গত ১ অগাস্ট রাতে শামীমের চাচা ওয়ারেছ আলী ও তামসেন প্রথমে শ্বাসরোধ ও পরে মৃত্যু নিশ্চিত করতে কাঁচি দিয়ে দু্‌ই বোনের গলা কাটে। পরদিন পুলিশ তাদের লাশ উদ্ধার করে। ঘটনার সময় তাদের মা তাসলিমা বেগম বাড়িতে ছিলেন না।

আদালতে দেওয়া তাদের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী তারা আগের দিন মঙ্গলবার সন্ধ্যারাতের দিকেই ভাবনা আক্তারদের ঘরে ঢুকে টিভি দেখেন। খুশগল্প করেন এবং তার মায়ের খোঁজ নেন। আদালতের দেওয়া তাদের ভাষ্য অনুযায়ী তারা রাত ১২টার পরেই দুই বোনকে খুন করেছেন বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

তিনি বলেন, ওয়ারেছ আলী ও তামসেনকে গ্রেপ্তারের পর বুধবার আদালতে হাজির করলে তারা আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দিতে হত্যার কথা স্বীকার করেন।

মামলার তদন্ত প্রায় শেষ পর্যায়ে। খুব শিগগিরই আদালতে অভিযোগপত্র দেওয়া হবে বলে জানান এ পুলিশ কর্মকর্তা।

মন্তব্য করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twelve + five =