বকশীগঞ্জে ব্রীজ ভেঙ্গে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

আফজাল শরীফ, বকশীগঞ্জ প্রতিনিধি : জামালপুরের বকশীগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতির ভয়াবহ অবনতি হয়েছে। তলিয়ে গেছে ক্ষেতের ফসল, রাস্তাঘাটসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা। বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে ৬০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। পানিবন্ধী হয়ে পড়েছে প্রায় ৯৮ হাজার মানুষ।
জানা গেছে, বন্যায় ব্রক্ষপুত্র ও দশানী নদীর পানি ব্যাপক বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে উপজেলার মেরুরচর, সাধুরপাড়া, বগারচর ও নিলাক্ষিয়া ইউনিয়নের প্রায় ৯৮ হাজার মানুষ পানিবন্ধী হয়ে পড়েছে। তলিয়ে গেছে ফসলি জমি ও রাস্তা ঘাট। অনেক জায়তগায় কাচা সড়ক ভেঙ্গে গেছে। পানির তীব্য স্রোতে রাস্তার দুই পাশের মাটি সরে যাওয়ায় বগারচর ইউনিয়নের গাজীর পাড়া-আলিরপাড়া শহীদ আহাদুজ্জামান সড়কের একটি ব্রীজ, মেরুরচর ইউনিয়নের মেরুরচর-আউলপাড়া সড়কের একটি ব্রীজ ও সাধুরপাড়া ইউনিয়নের মাদারেরচর তালতলা পাগলার সড়কে ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রালয়ের অর্থায়নে একটি ব্রীজসহ ৩টি ব্রীজ ভেঙ্গে গেছে। ঝুকিঁপূর্ণ রয়েছে আরো কয়েকটি ব্রীজ ফলে উপজেলা সদরের সাথে ওই সকল এলাকার সড়ক যোগাযোগ বি”্ছন্নি হয়ে পড়েছে। এছাড়া মেরুরচর ইউনিয়নের ফারাজীপাড়া বিএম কলেজ, মেরুরচর হাছেন আলী উচ্চ বিদ্যালয়, কলহি হারা বাঘাডুবি দালিখ মাদ্রাসা, ভাটি কলকিহারা, বগারচর আলিরপাড়া ও শেখেরচর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ ৬০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে কতৃপক্ষ।
এব্যাপাওে বকশীগঞ্জ উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ ছানোয়ার হোসেন জানান, এ পর্যন্ত ২০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে বকশীগঞ্জ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আফতাব উদ্দিন জানান, সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন ও পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় ৪০টি প্রাথমিক বিদ্যালয় বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে উপজেলা উপ-সহকারী প্রকৌশলী মো. বোরহান উদ্দিন জানান, প্রাথমিক তথ্যমতে বকশীগঞ্জ উপজেলার প্রায় ৯৮ হাজার মানুষ পানিবন্ধি হয়ে পড়েছে। এছাড়া ত্রাণ ও দুর্যোগ মন্ত্রালয়ের অর্থায়নে ২০১৬-২০১৭ অর্থবছওে ৩২ লাখ টাকা ব্যায়ে নির্মিত সাধুরপাড়া ইউনিয়নের মাদারেরচর তালতলা পাগলার সড়কের একটি ব্রীজসহ তিনটি ব্রীজ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

seventeen − two =