প্রজন্ম সংসদে জামালপুরের শিশুদের কথা বলবেন তুষার

ইউনিসেফ বাংলাদেশ ও বাংলাদেশ ডিবেট ফেডারেশন পরিচালিত বাংলাদেশ প্রজন্ম সংসদ এর আসন্ন জাতীয় অধিবেশনে জামালপুরের শিশুদের সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা তুলে ধরবেন জামালপুর-৫ আসনের শিশু সংসদ সদস্য মোঃ মাহফুজুল হক (তুষার)৷

আগামী ২৩ জানুয়ারি বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ ভবনের পার্ললামেন্ট মেম্বার্স ক্লাবে এ অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে। মোঃ মাহফুজুল হক (তুষার) জামালপুর সদর উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়নের শ্রীপুর কুমারিয়া গ্রামের মোঃ শামছুল হক ও মাহফুজা হকের একমাত্র সন্তান৷ নান্দিনা এম এইচ কে সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে ২০১৯ সালে এসএসসি পাশ করে বর্তমানে সে সরকারি আশেক মাহমুদ কলেজে একাদশ শ্রেণিতে অধ্যয়নরত। পাশাপাশি সে ইউনিসেফ পরিচালিত হ্যালো ডট বিডি নিউজ ২৪ এর শিশু সাংবাদিক, দুরন্ত ২৪ ডট কম এর বিশেষ প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করে৷

সে ন্যাশনাল চাইল্ড জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ এর কেন্দ্রীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবেও দায়িত্বরত৷ বাংলাদেশ প্রজন্ম সংসদের জাতীয় অধিবেশনে যোগ দেওয়ার ব্যাপারে তুষার বলেন, জামালপুরের শিশুদের সমস্যা ও সম্ভাবনা নিয়ে সংসদ অধিবেশনে আলোচনা করতে চাই। শিশু শিক্ষা, শিশুশ্রম, শিশু নির্যাতন, শিশু অধিকার, বাল্যবিবাহ ইত্যাদি বিষয়ে জামালপুরের পরিস্থিতি তুলে ধরতে চাই৷ কিভাবে শিশু শ্রম, শিশু নির্যাতন, শিশুর প্রতি সহিংসতা বন্ধ করা যায় তার প্রস্তাবনা তুলে ধরতে চাই এবং শিশুদের জন্য নিরাপদ ইন্টারনেট নিয়ে কথা বলতে চাই৷

প্রসঙ্গত , বাংলাদেশের জনসংখ্যার ৪০ শতাংশ অর্থাৎ দেশের প্রায় অর্ধেক জনগোষ্ঠীই হলো শিশু। যাদের বয়স ১৮’র কম। এদের ভোট দেওয়ার অধিকার না থাকলেও আছে মতামত দেওয়ার অধিকার। আবার আমাদের দেশে সব থেকে বেশি সমস্যার সম্মুখিন হয়ে থাকে এই শিশুরাই। বিভিন্ন সময় শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন, হত্যা ও ধর্ষণের শিকার হয় তারা। জাতিসংঘের শিশু উন্নয়ন তহবিল “ইউনিসেফ” শিশুদের জন্য নিরাপদ বিশ্ব উপহার দিতে বদ্ধ পরিকর৷ এরই ধারাবাহিকতায় শিশুদের জন্য নিরাপদ বাংলাদেশ গড়তে, নির্যাতন, সহিংসতা প্রতিরোধ করতে কি কি পদক্ষেপ নেয়া যায় এসব বিষয়ে শিশুদের সাথে সরাসরি নীতিনির্ধারকদের মতামত প্রদানের লক্ষ্যে ইউনিসেফ গঠন করেছে ‘বাংলাদেশ প্রজন্ম সংসদ’।

বাংলাদেশের নীতি-নির্ধারক ও দেশের ৩শ সংসদীয় আসন থেকে ৩শ প্রজন্ম সংসদ সদস্য নিয়ে এর অধিবেশন বসবে। যা শিশু ও নীতি নির্ধারকদের মধ্য যোগাযোগের সেতু বন্ধন হিসেবে কাজ করবে। তবে শুধু শিশুদের সুরক্ষায় নয় জলবায়ু পরিবর্তন, ইন্টারনেট সুরক্ষা,তরুণদের দক্ষতা ও কর্মসংস্থান, বাক স্বাধীনতা ও তথ্য পাওয়ার অধিকার সহ সর্বমোট ১৫ টি বিষয় নিয়ে এবারকার সংসদে আলোচনা হবে৷ নিয়মিত টাস্ক, শিশু অধিকার ফোরামে অংশগ্রণের উপর যাচাই বাছাই করে দেশের ৩০০ আসন থেকে ৩০০ জন শিশু সংসদ সদস্য জাতীয় অধিবেশনে যোগ দেয়ার জন্য নির্বাচিত হয়েছে৷

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *